১০-১৩ লাখ সংক্রমণ হতে পারে ভারতে

১০-১৩ লাখ সংক্রমণ হতে পারে ভারতে

হ্যাঁ আপনি ঠিকই পড়ছেন ১০-১৩ লাখ সংক্রমণ হতে পারে ভারতে, এমনটাই ধারণা করছে দেশ বিদেশের বিশেষজ্ঞরা। এই তথ্য ভারতকে ভাবতে বাধ্য করছে।

১০-১৩ লাখ সংক্রমণ হতে পারে ভারতে    

দেশ বিদেশের বিশেষজ্ঞেরা আশঙ্কা করছেন, ভারতের মতো জনঘনত্বের দেশে অন্তত ১০ থেকে ১৩ লক্ষ মানুষ করোনায় আক্রান্ত হতে চলেছেন। উনাদের এই তথ্য নিছক ধারণা নয়। সবকিছুকে নজরে রেখেই এই কথা বলছেন উনারা।

ইন্ডিয়ান কাউন্সিল অব মেডিক্যাল রিসার্চ বা আইসিএমআর-এর রিপোর্ট যদিও বলছে, পারস্পরিক সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখলে এ দেশে করোনা-সংক্রমণ প্রায় ৬২ শতাংশ কমানো সম্ভব।

কিন্তু বিশেষজ্ঞদের একাংশ এতে আশ্বস্ত হচ্ছেন না। তাঁদের মতে, সরকার না-মানলেও ভারতে গোষ্ঠী-সংক্রমণ শুরু হয়ে গিয়েছে। এর তার প্রমাণ পাওয়া যাচ্ছে সংক্রমণের হার বাড়তে দেখেই।

অনেকেরই সংক্রমণের উৎস বোঝা যাচ্ছে না। অতএব আইসিএমআরের তত্ত্ব তখনই খাটে, যদি গোষ্ঠী-সংক্রমণ শুরু হওয়ার আগে থেকেই সামাজিক দূরত্ব পালন যায়।

১০-১৩ লাখ সংক্রম৷ হতে পারে ভারতে

কীভাবে আটকানো যাবে সংক্রমণ   

ভারতের মতো বিপুল জনঘনত্বের দেশে এই সংক্রমণ থামানো খুবেই চাপের। মানুষ সচেতন না হলে লকডাউন করেও এই সংক্রমণ কমবে না বলেই দাবি করছেন বিশেষজ্ঞরা।

এখনো ভারতের অনেক মানুষ মোটেও সচেতন নন। তারা হাটে বাজারে ভীড় জমাতে ছাড়ছেন না। সোশাল দূরত্বও বজায় রাখছেন না।

এক ঘন্টা অন্তর তো দূরের কথা খাবার খাওয়ার আগেও বেশিরভাগ মানুষ এখনো সাবান কিংবা হেন্ড ওয়াস ব্যবহার করছেন না।

যদি ভারতে এই সংক্রমণ আঁটকাতে হয় তাহলে সরকারের নির্দেশ পালন করা একান্ত কর্তব্য। সরকার সকলের ভালর জন্যই দিন দিন কঠোর হতে বাধ্য হচ্ছেন।

এখন হুল্লোড় করার সময় না, আড্ডা দেওয়ার সময় না, কিন্তু কে শুনছে কার কথা। ইতালির মতোই ভাবছে ভারতের মানুষ। যার পরিনাম ইতালিত চেয়ে বহুগুণ বেশি ভয়ংকর হতে পারে।

১০-১৩ লাখ সংক্রমণ হতে পারে ভারতে

এখন সময় সচেতন হওয়ার সচেতন করার, আপনি যদি ভাবছেন আপনার কিছুই হবে না আপনি এক্কেবারেই নিরাপদ তাহলে ভুল করছেন।

এই ভুল পুরো দেশের সর্বনাশ করে দিতে সক্ষম। তাই সচেতন হন, নতুবা ভারতের ভবিষ্যৎ মোটেও ভাল হবে না।

সরকারের নির্দেশ পালন করুন, গুজব ছড়াবেন না গুজবে কান দেবেন না। বাড়ির বাইরে খুব প্রয়োজন ছাড়া কিছুতেই বের হবেন না।

Spread the love

Leave a Reply