নিজামুদ্দিন সমাবেশ

নিজামুদ্দিন সমাবেশ ঘিরে ভয়ানক বিপদে পড়ল ভারত

ভয়ানক বিপদে পড়ল ভারত, লকডাউন চলাকালীনেই দিল্লির নিজামুদ্দিনে জমায়েতছিল বহু মানুষ। তাদের ভেতর থেকেই ২৪ জনের ধরা পড়ল করোনা। মৃত্যু হয়েছে ছয় জনের। যা সরকারকে মোটেই শান্তি দিচ্ছে না। দেশ বিদেশ মিলিয়ে নিজামুদ্দিনে জমায়েত ছিলেন প্রায় ১৪০০ মানুষ।

আতঙ্কের আকার নিল নিজামুদ্দিন সমাবেশ  

করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ রুখতে চলতি মাসের শুরুতে দিল্লিতে সমস্ত ধরনের বড় জমায়েত নিষিদ্ধ করেছিল রাজ্য সরকার। কোনও ধর্মীয়, সামাজিক, সাংস্কৃতিক বা রাজনৈতিক সমাবেশে একসঙ্গে ৫০ জনের বেশি জমায়েত করা যাবে না বলে পরিস্কার ভাবে  জানিয়ে দেওয়া হয়েছিল। 

কিন্তু তার পরেও এ মাসের প্রথম দিকে দিল্লির নিজামুদ্দিন অঞ্চলে ওই ধর্মীয় সভার আয়োজন করা হয়। 

 

দেশের বিভিন্ন রাজ্য ছাড়াও মালয়েশিয়া, ইন্দোনেশিয়া, সৌদি আরব এবং কিরঘিজস্তান থেকেও অনেক ব্যক্তি এই সম্মেলনে অংশ নিয়েছিলেন। এই ধর্মীয় সম্মেলন শেষ হয়ে যাওয়ার পরেও অনেকে সেখানে থেকে যান। 

এমনকী গত ২৪ মার্চ দেশজুড়ে ২১ দিনের লকডাউন শুরু হওয়ার পরেও সেখানে বহু মানুষ রয়েছেন। যারা পুরোপুরি ভাবে সরকারের নিয়ম অগ্রাহ্য করেছেন। 

এর পরিনতিও মোটেও ভাল হয়নি। ইতি মধ্যেই করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ২৪ জন, মারা গেছেন ছয় জন।  

নিজামুদ্দিন সমাবেশ ভারতকে বিরাট চিন্তায় ফেলল

সমস্যা এখানেই শেষ নয়, যারা বিভিন্ন রাজ্য থেকে এসেছিলেন তাদের অনেকেই নিজ নিজ রাজ্যে ফিরে গেছেন। তাদের এই ফিরে যাওয়া থেকে মহামারির আকার নিতে করোনা, এমনটাই দাবী করছে বিশেষজ্ঞরা।

নিজামুদ্দিন থেকে যদিও জানানো হচ্ছে তারা সরকারের আদেশ মোটেও অমান্য করে নি। হঠাৎ করে লকডাউন ঘোষণা হওয়ার জন্যই নাকি বেশিরভাগ বাড়ি ফিরতে পারে নি।

আবার সমাবেশে যোগ দেওয়া আন্দামানের ৯ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন।

এই সমাবেশের প্রভাব কতটা ভয়ানক হতে পারে তা আপাতত বোঝা না গেলেও একটা ধারণা তৈরি করতে পারবেন আপনারা নিজেরাই।

একজন ব্যক্তি ৩-৪ ঘন্টায় ৩ জন ব্যক্তিকে সংক্রামিত করে, পরের তিন চার ঘন্টায় ওই তিনজন আরও তিনজন করে করে ৯ জন ব্যক্তিকে সংক্রামিত করবে। এভাবেই সারা দুনিয়ায় বিরাট আকার নিয়েছে করোনা।

আমাদের দেশের পরিকাঠামো ইতালি ফ্রান্স বা আমেরিকার মতো নয়, তাই ভারত তৃতীয় স্টেজে পৌঁছালে ভারতের অবস্থা কতটা ভয়ানক হবে তা হয়তো কল্পনাও করতে পারবেন না।

দেশবাসীর একটা ভুল অউরো দেশকে সর্বনাশের দিকে ঠেলে দিতে পারে, তাই সচেতন থাকুন সচেতন থাকতে বলুন। সরকারের আদেশ অমান্য করে নিজের আর নিজের পরিবারের বিপদ ডাকবেন না।

Spread the love

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.