নতুন শিক্ষানীতি

নতুন শিক্ষানীতি

চলুন নতুন শিক্ষানীতি তে ঠিক কী কী পরিবর্তন হয়েছে তা সহজ সরলভাবে বুঝে নেওয়া যাক। এই শিক্ষানীতির আগে কী ছিল এখন কী হল।

১। ১০+২ নয়, স্কুল শিক্ষা ৫+৩+৩+৪ বিন্যাসে। তিন বছর থেকে শিক্ষা শুরু। প্রথম তিন বছর প্লে গ্রুপ ও কিণ্ডারগার্টেন, তারপর ক্লাস ওয়ান ও টু (প্রথম ৫)।
এরপর তিন বছর প্রাথমিক স্কুল। ষষ্ঠ থেকে অষ্টম শ্রেণী মধ্যশিক্ষা। এই পর্বের শুরুতেই পড়ুয়ারা ঠিক করবে তাদের বিষয়। নবম থেকে দ্বাদশ মোট আটটি সেমেস্টারে পরীক্ষা হবে। দশম ও দ্বাদশের আলাদা করে নয়।
২। সায়েন্স, আর্টস, কমার্স স্ট্রিম থাকবেনা।
৩। ২০২৫ সালের মধ্যে সবার জন্য প্রাথমিক শিক্ষা নিশ্চিত করতে হবে।
৪। ৪ বছরের ব্যাচেলার ডিগ্রিকে অগ্রাধিকার। নতুন এই চার বছরের ডিগ্রি কোর্সকে বলা হচ্ছে মাল্টি ডিসিপ্লিনারি ব্যাচেলারস প্রোগ্রাম। এর ফলে পড়ুয়ারা যে কোনও বিষয় নির্বাচন করতে পারবেন। তবে সার্টিফিকেট বা ডিপ্লোমা নিয়ে প্রথম, দ্বিতীয় বা তৃতীয় বর্ষেও বেরিয়ে আসা যাবে। একে বলা হয় মাল্টিপল্ এন্ট্রি অ্যাণ্ড এক্সিট সিস্টেম। এর জন্য একটি ক্রেডিট ব্যাঙ্ক গড়া হবে। পড়ুয়ার প্রত্যেক বর্ষের প্রাপ্ত নম্বর যেখানে জমা থাকবে।
এই শিক্ষা ব্যবস্থাতে মূলত নজর দেওয়া হচ্ছে
ক. যে কোনও বিষয় উচ্চশিক্ষার জন্য বাছাই করতে পারবে পড়ুয়ারা।
খ. মাতৃভাষা সহ তিনটি ভাষার শিক্ষায় জোর।
গ. বাস্তব জীবনের কাজে লাগবে এমন শিক্ষার উপযোগী পাঠক্রম।
ঘ. উঠে যাচ্ছে এমফিল।

নতুন শিক্ষানীতি বিস্তারিত  

Spread the love

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.