রাত ৮টা প্রধানমন্ত্রীর ভাষণ

আরও ২১ দিন সারাদেশ লকডাউন থাকবে, জাতির উদ্দেশ্যে বললেন প্রধানমন্ত্রী

মানুষের বোকামি আর ঔদ্ধত্য দেখে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী জাতির উদ্দেশ্যে আজকে রাত আটটায় আবার ভাষণ দিতে বাধ্য হলেন। আলোকপাত করলেন অনেক গুরুত্বপূর্ণ বিষয় নিয়ে।      

জাতির উদ্দেশ্যে  প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর ভাষণ 

আজ দেশ তথা জাতির উদ্দেশ্যে করোনা ভাইরাস নিয়ে দ্বিতীয়বার ভাষণ দিলেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। করোনা ভাইরাস নিয়ে  পাঁচদিন আগেই উনি ভাষণ দিয়েছিলেন।

সেই ভাষনে বলা হয়েছিল গত রবিবার জনতা কার্ফু জারি করার কথা, মানুষ সেই জনতা কার্ফু মেনেনিয়ে দেশজুড়ে কার্ফু বজায় রেখেছিল। কিন্তু সমস্যা হয়েছিল অন্য জায়গায়। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী সতর্ক বার্তা দেওয়ার সঙ্গে সঙ্গে আরেকটি দায়িত্ব দিয়েছিলেন দেশবাসীকে।

☛ দেখুন এই ভয়াবহ সময়ে করোনা নিয়ে কী বললেন সলমান খান 

☛ মোদী জি বলেছিলেন যারা মানুষের জন্য নিজের জীবন বিপন্ন করে কাজ করছেন তাঁদেরকে ধন্যবাদ জানানোর জন্য বিকেল পাঁচটায় বেলকনিতে বা জানালায় দাঁড়িয়ে হাততালি, উলুধ্বনি, শাঁক বা কাঁসর যাহোক কিছু পিটিয়ে শব্দ তৈরি করে শ্রদ্ধা জানাতে।

এখান থেকেই শুরু হয় যত বিপত্তি। দলে দলে মানুষ বিকেল পাঁচটায় রাস্তায় নেমে এসে মেলা বসিয়ে দেয়। অনেকেই মনে করেছেন সারা দিনের কার্ফু বেকার গেছে বিকেল বেলায়।

এরপরই শুরু হয়েছে বিভিন্ন রাজ্যে লকডাউন। কিন্তু অনেক মানুষ এখনো লকডাউন মানতেই চাইছেন না। এই জন্যই প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী আজকে রাত ৮ টায় আবার ভাষণ দিতে বাধ্য হলেন।

মানুষ সচেতন না হলে সরকার কিছুই করতে পারবেন না। ভারতের চিকিৎসা ব্যবস্থা ইতালির ধারে কাছেও যায় না, এরপর আপনিই কল্পনা করুন এই দশা ইতালির মতো উন্নত কম জনবহুল দেশের হলে ভারতের হাল কী হতে পারে।

বাস্তবিক বললে ভারতে করোনা ভালভাবে ছড়িয়ে গেলে আমাদের মৃত্যুতে কাঁদার জন্যও কেউ থাকবে না। এটাই বাস্তব।

একদিন আগেই লকডাউন না মানার জন্য ক্ষোব প্রকাশ করে  টুইট বার্তা দিয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী।  কিন্তু তাতেও কাজ হয় নি দেখেই আজকে রাত ৮ টায় আবার জাতির উদ্দেশ্যে  মুখোমুখি মোদী জি।

জাতির উদ্দেশ্যে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সতর্ক বার্তা   

  • তিন সপ্তাহের জন্য লকডাউন করা হল।
  • সবাইকে এটা মানতেই হবে
  • না মানলে কার্ফু জারি করা হবে।
  • সবাইকে বারবার অনুরোধ করা হচ্ছে একজন প্রধানমন্ত্রী হিসেবে নয়, পরিবারের সদস্য হয়ে বলেছেন উনি।
  • ঘরে থাকুন ঘরে ঘরেই থাকুন।

 

Spread the love

Leave a Reply