Skip to toolbar
করোনা ত্রাণ তহবিল

করোনা ত্রাণ তহবিল, আপনিও দান করুন

করোনা ত্রাণ তহবিল -এ দান করুন, বলে বাংলার ত্রাণ তহবিলে সাহায্য করতে বললেন মাননীয়া মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। দেওয়া হয়েছে একাউন্ট নম্বর।

করোনা ত্রাণ তহবিল

করোনা ত্রাণ তহবিল

করোনা ভাইরাসের আতঙ্ক কিছুতেই কমছে না, একটু স্বস্তির নিশ্বাস নিতে না নিতেই আরো একজন আক্রান্ত ব্যক্তি ধরা পড়েছেন। বাড়তে পারে আক্রান্তের সংখ্যা। তাই বাংলার ত্রাণ তহবিলে অর্থ সাহায্য করার আহ্বান জানিয়েছেন মাননীয়া মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। চলুন হাতে হাত মেলায়। করোনাকে হারাই।

করোনা পরিস্থিতি নিয়ে গতকাল দুপুরে নবান্নে সাংবাদিক বৈঠক করেন মুখ্যমন্ত্রী। সেখানে তিনি জানান, রাজ্য ইতিমধ্যেই আপৎকালীন ত্রাণ তহবিলে ২০০ কোটি টাকা বরাদ্দ করা হয়েছে। এ ছাড়াও, ৪ লক্ষ বিশেষ পোশাক, ২ লক্ষ সার্জিক্যাল মাস্ক, ২০ হাজার আইআর থার্মোমিটার, ৩০০ ভেন্টিলেটর এবং ৩টি ইসিএও মেশিনের কেনার অর্ডার দেওয়া হয়েছে।

বাংলার ভাড়ার  প্রায় শূন্য হয়ে এসেছে।  এখন কেন্দ্রও তেমন সাহায্য করতে পারবে না। সারা দেশ জুড়েই চলছে লকডাউন। এখন একমাত্র উপায় সাধারণ মানুষের কাছে সাহায্য চাওয়া।

আপনি চাইলে সামান্য কিছু দান করে হলেও এখন পশ্চিম বাংলাকে সাহায্য করতে পারেন। এই সাহায্য চাওয়া হচ্ছে করোনায় আক্রান্ত মানুষকে বেটার পরিসেবা দেওয়ার জন্য।

এই রাজ্যের চিকিৎসা ব্যবস্থা এতটা উন্নত নয় যে করোনার মতো মহামারির মোকাবিলা করতে পারে। তাই মরিয়া হয়ে নিজেদের চিকিৎসা ব্যবস্থা এবং চিকিৎসক নার্সরা যাতে আক্রান্ত না হয় সেই ব্যবস্থা করা হচ্ছে।

রাজ্যের চিকিৎসা ব্যবস্থাকে উন্নত করার জন্য প্রয়োজন আর্থের, তাই সাধারণ মানুষের কাছে সাহায্য চেয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী।

করোনা ত্রাণ তহবিল

নিচের ব্যাঙ্ক একাউন্টে আপনি সরাসরি করোনা ত্রাণ তহবিলে দান করতে পারেন  

অ্যাকাউন্ট নম্বর হল ৬২৮০০৫৫০১৩৩৯। আইএফএসসি কোড-আইসিআইসি০০০৬২৮০। এমআইসিআর কোড-৭০০২২৯০১০।

এখন সময় মানুষের পাশে থাকার। যদি ৫০-১০০ টাকা সাহায্য করেও মানুষকে ভাল রাখা যায়, ডাক্তার নার্সকে নিরাপদে রাখা যায় তাহলে আমাদের সবার উচিৎ এখন মাননীয়া প্রধানমন্ত্রীর ডাকে সাহায্য করা।

শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় সাহায্য চেয়েছেন শিক্ষিত মহলের কাছে। অনেকেই সাহায্য করেছেন করোনা ত্রাণ তহবিলে। আসুন আমরাও হাতে হাত মেলাই। দেশ থেকে করোনা নামক মৃত্যুকে পরাজিত করি।

এই রাজ্য আমাদের রাজ্যের প্রতিটা মানুষ আমাদের, আজ আমাদের সুযোগ এসেছে আবার প্রমাণ করার।

জানুন লকডাউনে কীভাবে কাটবে সময়  

সকলের তরে সকলে আমরা

প্রত্যেকে আমরা পরের তরে।

Spread the love

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

COVID-19

করোনা ভাইরাস সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য দেখুন